আমাদের পরিচিতি

ইসলাম আল্লাহর একমাত্র মনোনীত দ্বীন । এই দ্বীন আল্লাহর জমীনে কায়েম ও দায়েম রাখার জন্য একটি জামায়াত সর্বদাই কাজ করে আসছে। সহাবা আজমায়িন, তাবেঈন ও তাবে ’ তাবেঈন আইম্মায়ে মুজতাহিদীন এই মহান কাজের আঞ্জামদিয়ে গেছেন। ভারতবর্ষে ইংরেজ বেনিয়ারা প্রবর্তন করেছিল একটি জাগতিক শিক্ষা ব্যবস্থা।বৃটিশ প্রবর্তিত শিক্ষা ব্যবস্তার বিষফল হতে উপমহাদেশের সরল প্রান মুসলমানদের ইমান আক্বিদা ও তাহযীব-তামাদ্দুুনকে হেফাজত করতে রাসুল সা: এর ইঈিতে ১৮৬৬ সালে প্রতিষ্টিত হয় বিশ্ববিখ্যাত দ্বীনি মারকাজ দারুল উলুম দেওবন্দ, পর্যায়ক্রমে গোটা উপমহাদেশে গড়ে উঠে এ ধারার অসংখ্য মাদরাসা। এধারারই অনুসরনে প্রতিষ্ঠিত ”জামিয়া বাবুস সালাম ”।

এক নজরে জামিয়া বাবুস সালাম
নামকরণ ঃ চিরশান্তি ও কল্যানের ধারক-বাহক মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা: তার হস্ত মোবারকে নির্মিত মসজিদে নববী। তথা হতে সদা বিচ্ছুরিত হচ্ছে রহমতের অমীয় ধারা,তারই প্রধান ফটকের নাম ”বাবুস সালাম ”।সেই অমীয় ধারার প্রত্যাশায় নামকরন করা হয়েছে”জামিয়া বাবুস সালাম ” ।
অবস্থান ঃ বাংলার প্রানকেন্দ্র হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে বুকে জড়িয়ে বিশাল দেহ পল্লবী নিয়ে দন্ডায়মান জামিয়া বাবুস সালাম । জামিয়ার দক্ষিণ-পূর্ব পার্শে রয়েছে বিশাল র‌্যব কার্যালয় এবং তারই অনতিদূরে পূর্ব দিকে অবস্থান করছে হাজীদের হজ্জগমন পূর্ব মিলন কেন্দ্র ”হজ¦ ক্যাম্প”।
আদর্শ ঃ জামিয়া বাবুস সালাম বিশ্ব বিখ্যাত দ্বীনি মারকাজ দারুল উলুম দেওবন্দের সিলসিলাভুক্ত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আদর্শ ভিওিক সহীহ আক্বিদা বৃহওর দ্বীিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
লক্ষ ও উদ্দেশ্যঃ অত্র প্রতিষ্ঠানের লক্ষ ও উদ্দেশ্য হচ্ছে নিম্নে বর্ণিত বিষয়াবলীর যথাযথ বাস্তবায়ন।
(ক) ইলমে দ্বীনের হিফাজত ও ব্যাপক প্রসারের মাধ্যমে আল্লাহর বিধান ও সুন্নতে নববী প্রতিষ্ঠার লক্ষে নিয়মতান্ত্রিক তা’লিম ও তারবিয়াতের দরা হক্কানী আলেম,মুহাদ্দিস,মুফাসসির,হাফেজ ও ক্বারী , ইত্যাদি তৈরী করে যথোপযুক্তভাবে করে গড়ে তোলা ।

(খ) মুসলিম সমাজে দ্বীনি শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং সর্ব সাধারণের মাঝে সহীহ আকিদা ও পবিত্র কোরআন শরীফের শিক্ষাসহ জরুরী দ¦ীনি মাসায়িল শিক্ষাদানের ব্যবস্থা করা।
(গ) দ্বীন ইসলামের হেফাজত , দ্বীনের উপর আক্রমন প্রতিরোধ, খোদাদ্রোহীদের প্রতিহত করণসহ নাস্তিক্যবাদ , শিরক, কুফর, বিদয়াত ও সর্বপ্রকার পাপাচারের মূলতপাটন তথা আমর বিল মারুফ ও নাহী আনিল মুনকার এর মাধ্যমে সমাজে ন্যায় নীতি প্রতিষ্ঠা ও সর্বস্তরে ইসলামী সমাজ ব্যবস্থা প্রবর্তন করে।
কর্মসূচীঃউল্লিখিত সাফল্যর্জনে দৃড় প্রত্যয়ে জামিআয়  শিক্ষা ও সেবামূলক বিভাগসমূহ সুচারুপে পরিচালিত হচ্ছে ।

লিখেছেন jawad tahir